ব্রেকিং

x

গাজীপুর কালিয়াকৈরে নির্যাতনের স্বীকার আসপিয়া বেগমের পরিবার

সোমবার, ০৭ মে ২০১৮ | ৫:২৫ অপরাহ্ণ | 1162 বার

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলাধীন পদ্মপাড়া গ্রামের মো: কামাল হোসেনের স্ত্রী। আসপিয়া বেগমের মেয়ে কাকুলী আক্তার (১৬) নির্যাতনের শিকার হয়েছে বলে জানা গেছে। কাকুলীর বড় ভাই অপু সারোয়ার ঢাকায় একটি কোম্পানীতে চাকুরী করে। কাকুলীর বাবা ঢাকার বাহিরে থাকেন। আসপিয়া বেগম ও তার ছোট মেয়ে কাকুলীকে নিয়ে পদ্মপাড়ায় দীর্ঘ দিন বসবাস করে আসছেন। এবং কাকুলী বাগচালা জনতা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০১৭ সালে এস,এস,সি পরিক্ষায় উত্তির্ন হয়। কাকুলী ও তার মায়ের সেই সুখ সইল না। এস,এস,সি পাস করে । কলেজে পড়াশুনা করে ভাল কিছু হবার আশায় সে পড়াশুনা চালিয়ে যাচ্ছিল। গত ২৭-০৩-২০১৮ ইং তারিখে আনুমানিক বেলা ১১.৩০ মি: সময় আসপিয়া বেগম তার মেয়ে কাকুলীকে বাসায় রেখে প্রতিবেশীর বাড়ীতে গেলে কাকুলীকে বাসায় একা পেয়ে,এলাকার বখাটে,নেশাগ্রস্ত ও নারী লোভী টাংঙ্গাইল জেলার সখীপুর থানার সলংঙ্গা গ্রামের আজিজুলের ছেলে রিদয় (২২) তার ৩ সহযোগী নিয়ে ফাকা বাড়ী পেয়ে কাকুলীর রুমে ঢুকে তার শ্লীলাতা হানী ও ধর্ষনের উদ্দেশ্যে কাকুলীকে টানা হেচড়া করতে থাকে এবং তাকে মারধর সহ শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে। পরে কাকুলীর চিৎকারে এলাকার লোকজন এগিয়ে আসে। ৩ সহযোগীরা হলেন লাল মাহম্মুদ (২৬) পিতা জৈনুদ্দিন সাং পদ্মপাড়া কালিয়াকৈর, গাজীপুর।রাজিব(২২) পিতা নেহার আলী সাং সলংঙ্গা, সখীপুর টাংঙ্গাইল, ইমন (২০) পিতা সাইদুল ভূইয়া পদ্মপাড়া কালিয়কৈর,গাজীপুর। পরে কাকুলীর মা প্রতিবেশীর কাছে খবর পেয়ে বাড়ীতে চলে আসে এবং আসার সাথে সাথে কাকুলীর মাকে ধাক্কা দিয়ে রিদয় ও তার সহযোগীরা পালিয়ে যায়।এবং যাবার সময় কাকুলীর প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে চলে যায়।কাকুলীর মা আসপিয়া বেগম বলেন কাকুলীকে নিয়ে আমি বাসায় একা থাকি, দীর্ঘ দিন যাবত রিদয় তার মেয়েকে স্কুলে যাবার সময় রাস্তায় বিরক্ত করে।কাকুলীর মা বলেন, অসহায় বলে কি আমরা এই নির্যাতনের বিচার পাবোনা? আমি মাননীয় উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষের কাছে আমার মেয়ের উপর এই অমানুষিক নির্যাতনের তদন্ত সাপেক্ষে বিচারের দাবী জানাচ্ছি । এলাকা বাসীরা বলেন, আমরা গ্রামের সাধারণ মানুষ, কাকুলীর উপর যে নির্যাতন হয়েছে তা সত্য। আমরা তার প্রতিবেশী হিসেবে এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। তদসহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গও এই ঘটনার বিচারের দাবী জানান।কাকুলীর মা আসপিয়া বেগম যাতে সঠিক বিচার পায়। আমরা এলাকাবাসী এই ন্যাক্কার জনক ঘটনার প্রশাসনিকভাবে হস্তক্ষেপ কামনা করছি।এ বিষয়ে আসপিয়া বেগম বাদী হয়ে কালিয়াকৈর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।



নামাজের সময়সূচি

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৩:৫০ পূর্বাহ্ণ
  • ১১:৫৯ পূর্বাহ্ণ
  • ৪:৩৪ অপরাহ্ণ
  • ৬:৪২ অপরাহ্ণ
  • ৮:০৬ অপরাহ্ণ
  • ৫:১২ পূর্বাহ্ণ

Development by: webnewsdesign.com